“পুরুষের অধিকার কখনোই আমার অধিকার নয়”

ধিক্কার জানাই সেই নারীবাদীতাকে যেই নারীবাদ আমাকে শিক্ষা দেয়, “তুমি তাই করতে পারো যা একজন পুরুষ পারে”।

আমি ধিক্কার জানাই তাদেরকে যারা আমাকে বুঝান, “প্রকাশ্যে সিগারেট খাওয়া, পুরুষকে ডোমিনেট করা, ইচ্ছামত অশ্লীল পোশাক পরে ঘুরে বেড়ানো,আমি আমার মতো টাইপ একরোখা ভাবনা লালন করা সহ পুরুষের যাবতীয় খারাপ আচরণ অনুকরণ করা এবং তার প্রয়োগে সচেষ্ট হওয়াটাই আমার অধিকার।”

পুরুষের অধিকার কখনোই আমার অধিকার হতে পারেনা….কখনোই না। পুরুষ পারলেই আমাকে পারতে হবে আর না হলে পারব না?? কেন পারব না? আমি ততোটুকুই করব যতোটুকু আমার মেধা, শ্রম দিয়ে করা যায়।

এটা হতে পারে কোন পুরুষের চাইতে অধিক ঝাঁঝালো, কিংবা একেবারেই সামান্য। আমি বিশ্বাস করি, সফলতার কোন নির্দিষ্ট সীমা নেই। আমি নারী, আমি আমার নারীত্বের অধিকার চাই। যেই অধিকার আমার নারীত্বকে গর্বিত করে। আমার নারীত্বের সৌন্দর্যকে প্রস্ফুটিত করে। আমার প্রথম অধিকারের লড়াইতো সেটাই যেটা আমার নারীত্বের সম্মান, সৌন্দর্য কেড়ে নিতে চায় প্রতিনিয়ত।

সিগারেট খাওয়া কখনোই কোন ভালো জিনিস নয়, এটা খাওয়ার মাঝে নারী অধিকার প্রতিষ্ঠা দূর থাক এটা একজন মানুষকে নেশাগ্রস্ত হিসেবেই প্রতিষ্ঠা করে। আমি কেন নেশাগ্রস্ত হবো? পুরুষ হয়েছে তাই?? আমি সিগারেট খাবো না বরং আমি আমার মত প্রকাশের অধিকার বলে ওই সিগারেট খাওয়া ছেলেটাকে বলব, “তুমি সিগারেট খেও না” আমি আমার বুদ্ধির বলে, জ্ঞানের ছলে তাকে বুঝাবো “সিগারেটের খারাপ কি দিক গুলো আছে”

যদি এইটুকু করার সুযোগ আমার না থাকে তাহলে সেক্ষেত্রে আমি অবশ্যই অবহেলিত নারী। কেননা, এখানে আমার মত প্রকাশের সুযোগ নেই। আমি এই সুযোগ পাবার জন্য লড়াই করব, সিগারেট খাওয়ার জন্য নয়।

আমার জীবনে নারী অধিকার নিয়ে লড়াই করার কোন প্রয়োজন কখনোই ছিল না কেননা আমি নারী হিসেবে অবহেলিত হইনি কোনদিন। “তুমি মেয়ে, তুমি পারবে না” এই কথার মুখোমুখি আমাকে কোনদিন হতে হয়নি। আমি তাই করছি, যা আমার মেধায় কুলাচ্ছে।

আমি তাই পড়ছি, যা আমার সৌন্দর্যকে প্রস্ফুটিত করছে। আমি সেই পথেই হাটছি, যা আমাকে বাহবা পেতে সাহায্য করছে। আমি তাই করব যা আমাকে নারী হিসেবে পরিচয় করিয়ে দিবে সারা বিশ্ববাসীর কাছে। নারী হিসেবে আমার শারিরীক গঠনে আমার কিছু নির্দিষ্ট সৌন্দর্য আছে, কোন পুরুষকে অনুকরণ করতে গিয়ে আমি আমার এই সৌন্দর্য নষ্ট করতে পারব না।

আমার মেধায় ঝাঝ আছে, কোন পুরুষের ব্যর্থতা দেখে আমি সেই মেধায় জং ধরতে দিতে পারবনা।

আমার ভেতরে এক “কোমল আমি”র বাস আছে, কোন পুরুষের অমাণবিকতা দেখে আমি আমার কোমল আমিকে গলা টিপে হত্যা করতে পারব না। আমার ভেতরে সহবোধ আছে, আমি সেটা অন্যের জন্য নষ্ট করতে পারব না। আমার ভেতরে বিবেক আছে, অন্যের প্ররোচনায় আমি আমার সেই বিবেকে ঘুণ ধরতে দিতে পারব না।

আমি নারী। আমি পুরুষ অধিকার চাই না। আমি শুধু আমার অধিকার চাই। আমার নারীত্বের অধিকার, আমার মেধা প্রকাশের অধিকার, আমার মত প্রকাশের অধিকার। আমার ভেতরে যা কিছু ভালো তার সকল কিছু গ্রহণযোগ্যতার অধিকার দাও।

বিনিময়ে আমার যা কিছু খারাপ তা ধরিয়ে দেবার অধিকার, বর্জন করার অধিকার এমনকি শাস্তি স্বরূপ আমাকে বয়কট করার অধিকার আমি তোমাদের দেব।

লিখা: রোমানা আক্তার (শুদ্ধবালিকা)
ফাউন্ডার: ShuddhoShopno -শুদ্ধস্বপ্ন