১৮, জুলাই, ২০১৮, বুধবার

বড় ধরণের শাস্তির মুখে পড়তে যাচ্ছেন মুস্তাফিজ!

আপডেট: মে ২৯, ২০১৮

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
বড় ধরণের শাস্তির মুখে পড়তে যাচ্ছেন মুস্তাফিজ!

মাশরাফি পরবর্তী বাংলাদেশের দলের পেস আক্রমনের অগ্রনায়ক ভাবা হচ্ছিল যাকে সেই মুস্তাফিজুর রহমান একের পর এক ইনজুরিতে বাঁধাগ্রস্ত।

নিজের ছন্দ হারিয়ে যখনই আবার ফিরে আসার আভাস দিচ্ছিলেন তখনই আবার পড়লেন ইনজুরিতে। অফগানিস্তানের সাথে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে বাংলাদেশের দল যখন প্রস্তুতি নিচ্ছিল তখনই আচমকা ইনজুরি সব পরিকল্পনা ভেস্তে দিল। আর এই রহস্যজনক ইনজুরি নিয়ে নাখোশ বিসিবি কর্তারা।

মুস্তাফিজ না থাকাতে তার সার্ভিস থেকে বঞ্চিত হবে বাংলাদেশ দল। কিন্তু হঠাত কিভাবে এই ইনজুরি, এ কথার উত্তর মিলছেনা কিছুতেই। গত সন্ধ্যায় মুস্তাফিজ টিম ম্যানেজমেন্টকে জানান, ‘আমি হাঁটতে পারছি না। আমার পায়ের অগ্রভাগে প্রচন্ড ব্যথা।’ আর এটা নিয়ে নাখোশ বিসিবি কর্তারা। প্রশ্ন উঠেছে মুস্তাফিজের পেশাদারিত্ব নিয়ে।

এক নির্বাচক বিস্ময়ে বলেন, ‘এই তো দুদিন আগে (২৬ মে ) শেরে বাংলায় প্র্যাকটিস ম্যাচ খেললো। ফিল্ডিং করলো। কই মুস্তাফিজ তো ফিজিও-ট্রেনার, হেড কোচ, বোলিং কোচ, ম্যানেজার কিংবা টিম ম্যানেজমেন্টের কারো কাছে কোনোরকম অভিযোগ করেনি! দিব্যি সুস্থ মানুষ। হঠাৎ দেরাদুন যাবার আগের রাতে কেন ব্যথার কথা বলা?’

বাংলাদেশ দলের ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ সুজন দেশ ছাড়ার আগে বলেন, ‘আমার জানামতে সব ঠিকই ছিল। ২৬ মে শেরে বাংলা স্টেডিয়ামের দিবা রাত্রির প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছে মুস্তাফিজ। কোনো সমস্যা দেখিনি। সে কাউকে মুখ ফুটে কিছু বলেওনি। পরের দিন সকালে দল ভারত যাবে। তার আগের দিন সন্ধ্যার পরে বলে আমার পায়ে অসহ্য যন্ত্রণা। আমি যেতে পারবো না। আমার পক্ষে খেলা সম্ভব না। এটা কিছু হলো? জাতীয় দলের একজন ক্রিকেটারের এমন আচরণ, ভাবা যায়! এ যে রীতিমত দায়িত্ব ও কর্তব্যে অবহেলা।’

আইপিএল থেকে খেলা শেষ করে আসা মুস্তাফিজের এই ভৌতিক ইনজুরি নিয়ে মুখ খুলেছেন প্রধান নির্বাচক। তিনি বলেন, প্রধান নির্বাচকের সোজা সাপটা কথা, ‘এটা রীতিমত দায়িত্ব ও কর্তব্যে অবহেলা। পেশাদারিত্বের এতটুকু ছোঁয়া নেই। জাতীয় দলের ক্রিকেটারের কাছ থেকে এমন অপেশাদার আচরণ কোনোভাবেই কাম্য নয়। আমরা বিষয়টি খুঁটিয়ে দেখবো।’

ক্ষোভ ঝরেছে বিসিবির কর্তা আকরাম খানের কন্ঠেও। তিনি বলেন, ‘আইপিএল খেলে ব্যথা পেয়ে আসবে , জাতীয় দলকে সার্ভিস দিতে পারবে না। আর আমরা মানে ক্রিকেট বোর্ড নিজেদের অর্থায়ন ও গরজে তাদের চিকিৎসা করাবো, এটা কেমন মানসিকতা?’

বিশ্বস্তস সূত্রে জানা গেছে, মুস্তাফিজের ব্যাপারে কঠোর পদক্ষেপ নিতে যাচ্ছে বিসিবি। অপেশাদার আচরণ ও কর্তব্যে অবহেলার জন্য ডেকে পাঠানো হতে পারে মুস্তাফিজকে। এমনকি কারণ দর্শানো নোটিশও পাঠানো হতে পারে। এবং সে ক্ষেত্রে যথাযথ জবাব না মিললে বড় ধরনের শাস্তি অপেক্ষা করছে মুস্তাফিজের জন্য। এমনকি সাসপেন্ড বা অর্থদন্ডের মতো খড়গ নেমে আসতে পারে তার উপর।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন