১৯, আগস্ট, ২০১৮, রোববার

মৃত্যুদণ্ড থেকে রেহাই পেল ইউরোপের সেই গর্ভবতী গাভী, যে কারণে মৃত্যুদণ্ড ঘোষণা করা হয়েছিল

আপডেট: জুন ১৪, ২০১৮

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
মৃত্যুদণ্ড থেকে রেহাই পেল ইউরোপের সেই গর্ভবতী গাভী, যে কারণে মৃত্যুদণ্ড ঘোষণা করা হয়েছিল

সীমান্ত অতিক্রমের কারণে ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) আইন অমান্য করায় গর্ভবতী গাভী পেনকাকে মৃত্যুদণ্ড থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। ইইউ’র সীমান্ত পেরিয়ে গাভীটি সার্বিয়ায় ঢুকে পড়ায় আইন অনুযায়ী পেনকা নামের গাভীটির মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের দাবি করেছিলেন বুলগেরিয়ার কর্মকর্তারা। এদিকে পশুটির মৃত্যুদণ্ডের কথা বলায় প্রতিবাদ শুরু করে পশু অধিকার নিয়ে কাজ করা সংস্থাগুলো।

তিনি পাঁচ বছর বয়সী গাভীটি রক্ষার জন্য গণসমর্থনের আয়োজন করে একটি অনলাইন পিটিশন দায়ের করে। পরে গাভীর মালিক ইভান হারালামপিয়েভের সঙ্গে যোগাযোগ করে সার্বিয়া থেকে ফেরত পাঠানো হয়।

পেনকার বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল সম্প্রতি গাভীটি বুলগেরিয়ার সীমান্তবর্তী গ্রাম কপিলোভস্তিতে তার পাল থেকে বের হয়ে ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) অসদস্য দেশ সার্বিয়ায় ঢুকে পড়ে। কয়েক ঘণ্টা পরেই অবশ্য গাভীটি তার মালিক হারাম্পিয়েভের কাছে ফিরে আসে।

কিন্তু ততক্ষণে তার আইন ভাঙার কথা এক কান দু’কান করে ছড়িয়ে পড়ে সারা গ্রামে। আর এতেই বাড়ে বিপত্তি। এ অপরাধের শাস্তি হিসেবে ইইউ আইন অনুযায়ী, গাভীটির মৃত্যুদণ্ড ঘোষণা করে বুলগেরিয়ার স্থানীয় কর্তৃপক্ষ।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন