বাংলাদেশের হয়ে ইতিহাস গড়া রুমানা সম্পর্কে জানা-অজানা ১১ তথ্য

যা পারেনি ছেলে ক্রিকেটাররা, তাই করে দেখিয়েছে বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দল। প্রথমবারের মতো এশিয়া কাপ জিতে রীতিমত রেকর্ড গড়েছে রুমানা-সালমা বাহিনী। ছয়বারের চ্যাম্পিয়ন ভারতের বিপক্ষে জয় তুলে প্রথমবারের মতো বহুজাতিক কোন টুর্নামেন্টে ধামাকা দেখায় বাংলাদেশ।

হাইভোল্টেজ ফাইনালে নখ কামড়ানো অবস্থা থেকে বাংলাদেশকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেন অলরাউন্ডার রুমানা আহমেদ। শেষ বলে তার শ্বাসরুদ্ধকর দুই রানে প্রথমবারের মতো বহুজাতিক কোন শিরোপায় চুমু দেয়ার স্বাদ পায় বাংলাদেশ।

নিয়মিত আয়োজন ‘জানা-অজানা’ অধ্যায়ের ৮ম পর্বে আজ থাকছে বাংলাদেশ নারী দলের নাম্বার ওয়ান অলরাউন্ডার রুমানা সম্পর্কে ১১টি জানা অজানা তথ্য।

১. রুমানার পূর্ণ নাম রুমানা আহমেদ।
২. ২৯ মে, ১৯৯১ সালে খুলনা জেলায় জন্ম তার।
৩. ২৫ আগস্ট, ২০১২ সালে আয়ারল্যান্ড মহিলা ক্রিকেট দলের বিরুদ্ধে অভিষেক হয় তার।
৪. বাংলাদেশের নারী ক্রিকেটাদের মধ্যে বিগব্যাশে ডাক পাওয়া প্রথম অধিনায়ক রুমানা।
৫. ২০১১ সালে রুমানার হাত ধরে প্রথম জয় আসে বাংলাদেশের। সে ম্যাচে হ্যাটট্রিক করেন তিনি।
৬. বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দলের একমাত্র লেগ স্পিনার রুমানা। যদিও তার ক্যারিয়ার শুরু হয় অফ স্পিনার হিসেবেই।
৭. জাতীয় দলে খেলাধুলার পাশাপাশি একটি প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশুনাও চালিয়ে যাচ্ছেন রুমানা।
৮. জাতীয় দলের হয়ে এখন পর্যন্ত ৩৫টি ওয়ানডে ও ৪১টি টি-২০ ম্যাচ খেলেছেন তিনি।
৯. বাংলাদেশের এই নারী ক্রিকেটারকে জাতীয় দলের অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের সঙ্গে তুলনা করা হয়।
১০. এশিয়া কাপে শেষ বলে জয়সূচক রান আসে তার ব্যাট থেকে।

প্রসঙ্গত, এশিয়া কাপে সাফল্যের ফলে ১০ লক্ষ টাকার পাশাপাশি এক্সর্টা বোনাস পাবেন রুমানা।