এক বছর ধরে নিজ মেয়েকে ধর্ষণ করছে বাবা!

দির্ঘদিন ধরে কু-রুচি সম্পূণ্য পিতার লালসার শিকার হয়েছে এক মাদ্রাসা ছাত্রী (১৩)। দীর্ঘ প্রায় ১ বছর ধরে নিজ কন্যাকে বিভিন্ন সময় ধর্ষণ করে আসছিল পাষণ্ড পিতা। এ নিয়ে মেয়েটি তার মা ও দাদা-দাদীর কাছে একাধিকবার বিষয়টি জানালেও তারা বিষয়টি এড়িয়ে যায়। তবে তার মা এ বিষয়ে প্রতিবাদ জানিয়ে স্বামীর সাথে ঝগড়া করে নিজ বাবার বাড়িতে অবস্থান করছে দীর্ঘদিন।

এদিকে শুক্রবার (৮ ফেব্রুয়ারি) রাতে স্থানীয়রা বিষয়টি টের পেয়ে হাতেনাতে পাষণ্ড পিতাকে আপত্তিকর অবস্থায় ধরে ফেলে। পরে স্থানীয় পাষণ্ড পিতাকে উত্তম-মধ্যম দিয়ে ইউনিয়ন পরিষদে আটকে রাখে। এ ন্যাক্কার জনক ঘটনা ঘটেছে রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার পাট্টা ইউপির নিভা গ্রামে।

পাষণ্ড পিতা নিভা গ্রামের হোসেন মন্ডলের ছেলে রাজা মন্ডল। এ ঘটনার সংবাদ পেয়ে শনিবার পাংশা থানা পুলিশ ওই মাদ্রাসা ছাত্রীকে উদ্ধার করে পরীক্ষার জন্য মেডিকেলে পাঠিয়েছেন।

একই সাথে ওই পিতাকে গ্রেফতার করেছে। এ ব্যাপারে পাট্টা ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রব মুনা বিশ্বাস জানান, এটি একটি ন্যাক্কার জনক ঘটনা। পিতার নিকট কন্যা নিরাপত্তা না পেলে আর কোথায় পাবে। আমি এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানাচ্ছি।

স্থানীয়রা এ বিষয়টিকে মেনে নিতে না পেরে ধর্ষক পিতার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবীতে ইউনিয়ন পরিষদ চত্ত্বরে বিক্ষোভ করেছে। এ সংবাদ লেখাকালীন পাংশা থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে পাংশা থানার ওসি মোঃ আহ্সান উল্লাহ্ জানিয়েছেন। পাংশা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আহসান উল্লাহ বলেন, পিতার কাছে কন্যা নিরাপদ না হলে আর পৃথিবীর কোথায় নিরাপদে থাকবে।