পুরো ইরানে যত তেল আছে তার চেয়েও বড় তেলের খনি পেল পাকিস্তান!

অর্থনৈতিক মন্দায় ধুঁকছে পাকিস্তান। জঙ্গি তৎপরতা আর মুদ্রাস্ফীতিতে পড়ে রসাতলে দেশটির সাধারণ মানুষের জীবনমান।

আর এরই মধ্যে পাকিস্তানীদের অন্যরকম এক সুখবর দিয়েছে দেশটির অন্তর্বর্তী সরকারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবদুল্লাহ হুসেইন হারুন।

মঙ্গলবার পাকিস্তানের ফেডারেশন অব চেম্বার্স অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির এক বৈঠকে তিনি ঘোষণা দেন, পাকিস্তান-ইরান সীমান্তের কাছে এমন এক তেলের খনির সন্ধান মিলেছে যা গোটা কুয়েতের তেলের মজুদের চেয়েও বেশি। খবর আরব নিউজের।

তিনি দাবি করেন, এই একটি খনিতে কুয়েতের মোট মজুদের চেয়েও বেশি তেল রয়েছে।পাকিস্তান-ইরান পানিসীমার কাছে আমেরিকার ‘এক্সন মোবিল’ কোম্পানি বিশাল এই তেলের খনি খুঁজে পেয়েছে। এই তেলের খনি পাকিস্তানকে তেলের মজুদের দিক দিয়ে বিশ্বের ৬ষ্ঠ দেশে পরিণত করবে।

তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের বহুজাতিক তেল ও গ্যাস কোম্পানি এক্সন মোবাইল ইরানের সীমান্তের কাছে প্রায় ৫ হাজার মিটার পর্যন্ত ড্রিল করেছে এবং তেল আবিষ্কারের ব্যাপারে আশাবাদী। এই তেল ক্ষেত্র থেকে তেল উত্তোলন শুরু করতে এক হাজার কোটি ডলার খরচ হবে। আর চুক্তি অনুযায়ী উত্তোলনকৃত তেলের শতকরা ২৫ ভাগ এক্সন মোবিলকে দিতে হবে।

পাকিস্তানের জিও নিউজ জানিয়েছে, দেশটিতে তেল ও গ্যাসের মতো খনিজসম্পদের সন্ধানে এক্সন মোবিলকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। তারা এ পর্যন্ত ৫ হাজার মিটার খননকাজ সম্পন্ন করেছে।

বর্তমানে পাকিস্তানের মোট তেলের চাহিদার শতকরা ১৫ ভাগ অভ্যন্তরীণভাবে উত্তোলন করা হয়। বাকি ৮৫ ভাগ আমদানি করা হয়। নতুন এই তেলের খনি সন্ধান পাওয়ার বিষয়টি সত্য হলে বদলে যাবে দেশটির অর্থনীতির চেহারা।

-somoyerkonthoso