বিশ্বের মধ্যে মহিলাদের জন্য সবচেয়ে অসুরক্ষিত ১০ টি দেশ, ৩ নাম্বারটা দেখলে অবাক হবেন

আমরা কতটা উন্নতি করেছি এটা কোন বিষয় না, পৃথিবীতে এখনও মহিলারা নিরাপদ নয়। লিঙ্গ ভিত্তিক বৈষম্য, ভ্রূণহত্যা, গৃহস্থালি বিবাদ এবং ধর্ষণ এইগুলি খুবই সাধারণ সমস্যা এশিয়া ও আফ্রিকা মহাদেশের মহিলাদের। কিছু কিছু দেশে যৌনাঙ্গে অঙ্গহানি করা হয় মহিলাদের। এই সমস্ত দুর্দশাগ্রস্তত দেশে এখনই মহিলাদের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করা উচিত।

দেখুন বিশ্বের ১০ টি দেশ যা মহিলাদের জন্যে নিরাপদ নয়।

১। আফগানিস্থান

আফগানিস্থানে ৮৭ শতাংশ মহিলাই নিরক্ষর। মেয়েদের ১৫-১৯ বছর মধ্যে জোর করে বিয়ে দেওয়া হয়। একগুচ্ছ পারিবারিক বিবাদের কেস নতিভুক্ত করা হয় আফগান কোর্টে। মাতৃত্বকালীন মৃত্যু প্রতি ১০০০০০ এর মধ্যে ৪০০ জন এই দেশে।

২। গণতান্ত্রিক প্রজাতন্ত্র কঙ্গো

লিঙ্গ ভিত্তিক বৈষম্য ও পারিবারিক বিবাদ কঙ্গের মহিলাদের সাধারণ কিছু সমস্যা। আমেরিকান জার্নাল পাবলিক হেল্থের তথ্য অনুসারে কঙ্গোতে প্রতিদিন ১১৫০ জন মহিলা যৌন হয়রানির শিকার হয়।

৩। ভারত

ভারতীয় মহিলাদের কিছু নিত্য দিনের সমস্যা হল, গন ধর্ষণ, শিশু বিবাহ ও মানব পাচার। শেষ ৩০ বছরে ৫ কোটি কেস নতিভুক্ত হয়েছে মহিলাদের ওপর নির্যাতন নিয়ে।

৪। সোমালিয়া

সোমালিয়া একটি আফ্রিকান দেশ যেখানে কোন আইন কানুন নেই। মহিলা জনসংখ্যার ৯৫% মহিলা যৌনাঙ্গে অঙ্গহানি শিকার হয় ৪-১১ বয়সের মধ্যে। এফজিএম এর তথ্য অনুসারে এই দেশে মহিলারা যৌন নির্যাতন, মাতৃত্বের মৃত্যু, শিশু বিবাহ এই সমস্ত অসুবিধার শিকার হয়।

৫। কলম্বিয়া

ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ লিগ্যাল মেডিসিন অ্যান্ড ফরেনসিক সায়েন্স তথ্য বলছে ২০১০ সালে কলম্বিয়াতে সবচেয়ে বেশি সংখ্যক লিঙ্গ ভিত্তিক সহিংসতার কেস জমা পরেছিল। ভাগ্যের বিষয় যে সেখানে কিছু সংস্থা আছে যারা এই সমস্থ বিষয়ে এগিয়ে এসে আক্রান্ত মহিলাদের পাশে দাঁড়িয়েছে যারা অ্যাসিড আক্রান্ত ও পরিবারিক বিবাদের শিকার । দুঃখের কথা এই যে সেই সমস্থ মহিলা কোন রকম বিচার পাইনি, পুরুষেরা কোন দুঃখ প্রকাশ করেনি এবং তারা এর কোন শাস্তিও পাইনি।

৬। মিশর

মিশরে মহিলাদের যৌন হয়রানি এবং পারিবারিক বিবাদ একটি সাধারণ ঘটনা যা তারা রোজ মুখোমুখি হয়। মিশরের বিচার ব্যবস্থায় মহিলাদের বিচারের কোন জায়গা নেই। মিশরের মহিলারা বঞ্চিত, তাদের কোন অধিকার নেই বিবাহ, তালাক, যৌন হয়রানির বিরুধে বলার।

৭। মেক্সিকো

মেক্সিকোর বিচার বাবস্থায় মহিলাদের সুরক্ষায় কোন আইন নেই। সেখানে কিছু মহিলা এগিয়ে এসেছে রিপোর্ট করেছে তাদের ওপর হওয়া যৌন হয়রানির বিরুধে, কিন্তু তারা এর কোন বিচার এখন পাইনি।

৮। ব্রাজিল

এক তথ্য অনুসারে জানা যায় যে প্রতি ১৫ সেকেন্ডে মহিলারা আক্রান্ত হয় এবং প্রতি ২ ঘণ্টায় একজন করে মারা যায়। ব্রাজিলে গর্ভপাত নিষিদ্ধ শুধুমাত্র ধর্ষণ ও স্বাস্থ্যের অবনতি ছাড়া। যে সমস্থ মহিলা এই নিয়মের মধ্যে পড়েনা তাদের ৩ বছরের জন্যে জেলখানায় বন্ধী করা হয়।

৯। পাকিস্থান

পাকিস্থানের নাগরিকরা কিছু অপকর্ম করে যা সম্পূর্ণ অনৈতিক। পাকিস্থানের মহিলাদের কিছু নিত্যদিনের বিপদ হল অ্যাসিড আক্রমণ, জোর করে শিশু বিবাহ, পাথর ছুড়ে মারা, পারিবারিক বিবাদ। এই দেশে সবচেয়ে বেশি পণের জন্যে খুন করা হয়, সন্মানের জন্যে খুন করা হয়ে থাকে।

১০। থাইল্যান্ড

থাইল্যান্ড পর্যটকদের পছন্দের জায়গা হলেও যৌন হয়রানি এদেশে সাধারণ ঘটনা। থাইল্যান্ড গৃহভিত্তিক সহিংসতা তথ্য কেন্দ্রের থেকে জানা যায় যে লিঙ্গ ভিত্তিক আক্রমণ এই দেশের সাধারণ ঘটনা, এর কারন হল মদ আর ড্রাগ।