কি ঘটেছিল তখন, সত্যিই কি নেইমার মারাত্মক ব্যাথা পেয়েছে?

ম্যাচটি অবশ্যই বাচা-মরার ছিলো দুই দলের জন্যই। সেই সমীকরন নিয়েই মাঠে নামে দুই দল। ম্যাচের শুরু থেকেই চলে আক্রমন এবং পালটা আক্রমনের। ফার্স্ট হাফে গোলের দেখা পায়নি কোন দলেই। কিন্তু সেকেন্ড হাফে এসেই গোলের দেখা পায় ব্রাজিল ৫১ মিনিটেই উইলিয়ানের দুর্দান্ত এক অ্যাসিস্টে গোল পায় ব্রাজিল। কিন্তু যে বিষয়টি নিয়ে আজকের ম্যাচে সবচেয়ে বেশি আলোচিত সেটি হচ্ছে নেইমারের অভিনয়।

সেকেন্ড হাফে একটি ট্যাকেলে পড়ে যান জুনিয়র। এই সময় মেক্সিকোর একজন এসে বল নিয়ে নেন জুনিয়রের পায়ের থেকে। এরপরেই শুরু হয় আসল কাহিনী। বলটি নেওয়ার পর পরেই পা ধরে অভিনয় শুরু করেন জুনিয়র। সেই ধপাধপি এতোটাই অতিরিক্ত হয়ে পড়ে যে অনেকেই মনে করেছিলেন হয়তো নেইমারের বিশ্বকাপ শেষ!

রিপ্লাই ভিডিওতে দেখা যায় মেক্সিকোর খেলোয়াড়টি বল নিতে গিয়ে একসময় নেইমারের এঙ্কেলে পাড়া দেন। আর সাথে সাথেই ব্যাথায় চিৎকার করে উঠে নেইমার।অবশ্য এই এঙ্কেলে বেশ কিছু বার ব্যাথা পেয়েছেন নেইমার। নেইমারের কাকুতি দেখে সাথেই সাথেই সেখানে ম্যাজিক স্প্রে মারতে শুরু করেন ব্রাজিলের ফিজিওরা। ম্যাজিক স্প্রের কল্যানে সেখানকার ব্যাথা রীতিমতো কমে যায়।

তবে ওই ঘটনাটিকে ঘিরে ব্যাপক আলোচনা শুরু হয়ে গিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়াতে। তবে সবকিছুকে ছাপিয়ে ব্রাজিল দল নিশ্চিত করেছে কোয়ার্টার ফাইনাল। সেটাই বড় প্রাপ্তি ব্রাজিল সমর্থকদের জন্য।