১৬, অক্টোবর, ২০১৮, মঙ্গলবার

যুক্তরাষ্ট্রের নারী কয়েদিদের যা যা সহ্য করতে হয়, তা জানলে চমকে যাবেন

আপডেট: মে ২৯, ২০১৮

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
যুক্তরাষ্ট্রের নারী কয়েদিদের যা যা সহ্য করতে হয়, তা জানলে চমকে যাবেন

কয়েদি সংখ্যার বিচারে এগিয়ে রয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। এক আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, বিশ্বের ২৫ শতাংশ কয়েদিই থাকেন যুক্তরাষ্ট্রের জেলে। ১৯৮০ থেকে ২০১০ সালের মধ্যেই সংখ্যাটা সবচেয়ে বেড়েছে। পুরুষ কয়েদিদের পাশাপাশি একই ভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে মহিলা কয়েদিদের সংখ্যাও। বর্তমানে সে দেশে ১ লক্ষ মহিলার মধ্যে ৬৭ জনই বিভিন্ন অপরাধের জন্য জেলে বন্দি। এর মধ্যে গুরুতর অপরাধ যেমন রয়েছে, তেমনই রয়েছে সূক্ষ্ম অপরাধও। এক ঝলকে দেখে নিন সেখানকার জেলে মহিলাদের কী কী সহ্য করতে হয়।

১। নাবালিকা কয়েদিরা মাঝেমধ্যেই যৌন নিগ্রহের শিকার হন। বহুক্ষেত্রে জেল কর্মীরাই এই ঘটনার পিছনে থাকেন।

২। মহিলা কয়েদিরা পুরুষ কয়েদিদের তুলনায় বেশি অসুস্থ হন জেলে। হেপাটাইটিস সি, এইচআইভি, বিভিন্ন চর্মরোগ নিয়ে জর্জরিত থাকেন তারা। সবসময়ে এর প্রকৃত চিকিৎসাও মেলে না।

৩। জেলে থাকাকালীন অনেক নাবালিকা গর্ভবতী হয়ে পড়েছে। কর্তৃপক্ষ এ বিষয়েও নিরুত্তাপ।

৪। জেলকর্মীদের থেকে ক্রমান্বয়ে দুর্ব্যবহার পেতে পেতে মানসিক ভাবে অসুস্থ হয়ে পড়েন অনেক মহিলাই।

৫। জেল থেকে বেরনোর পরে চাকরি পাওয়া বা স্কুল-কলেজে যাওয়া একরকম অসম্ভব হয়ে যায়।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন