কুমিল্লায় বাবার বাড়ি বেড়াতে এসে গণধর্ষণের শিকার প্রবাসীর স্ত্রী!

ধর্ষণ, দিনে দিনে যেন বেড়েই চলেছে এর ভয়াবহতা। কোন ভাবেই যেন এর কোন নিস্পত্তি খুজে পাওয়া যাচ্ছে না। বরং মেয়েরা অনেকটাই যেন অসহায় এই নিকৃষ্ট কাজের কাছে। শিশু থেকে বৃদ্ধ কেওই এখন আর সুরক্ষিত না।

কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে পিতার বাড়ীতে বেড়াতে এসে এক সন্তানের জননী গৃহবধূ গণধর্ষনের শিকার হয়েছে। শনিবার রাতে মক্রবপুর ইউনিয়নের একটি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় নূরুল হক লিটন (২৪) নামের এক নরপিচাশকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ওই নারীর মা ও বাড়ীর লোকজন দাওয়াতে অংশগ্রহণ করতে এক আত্মীয়ের বাড়িতে বেড়াতে যায়। এ সুযোগে ঘটনার দিন সন্ধ্যায় প্রবাসীর স্ত্রীর পিতার ঘরে ঢুকে ওই গ্রামের তিন যুবক পালাক্রমে তাকে ধর্ষন করে।

এসময় তার আত্মচিৎকারে আশেপাশের লোকজন এগিয়ে এলে বখাটেরা পালিয়ে যায়। তবে ভিকটিম ওই নরপশুদের চিনে পেলে। এঘটনায় নির্যাতিতা বাদী হয়ে ৩ জনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেছে।

এ বিষয়ে নাঙ্গলকোট থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আশরাফুল ইসলাম জানান, ধর্ষিতা নিজে এবং তার মাসহ থানায় হাজির হয়ে অভিযোগ দিলে পুলিশ অভিযান চালিয়ে একজনকে আটক করেছে। অপর ধর্ষকদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। মামলাটি তদন্তাধীন রয়েছে।