সন্তানকে বাঁচাতে নিজের জীবন বিলিয়ে দিলেন মা হনুমান!

নিজের জীবন দিয়ে সন্তানের প্রাণ বাঁচালো মা হনুমান। প্রাণে বাঁচার পর মায়ের খোঁজে মনমরা সন্তান। ‘ইহি ইহি’ চিৎকারে কাঁদছে অনবরত। এখন উদ্ধারকারীর বাড়িতে মনখারাপ করে দিন কাটাচ্ছে সে। হয়তো বুঝতেই পারছে না যে মা আর কখনও ফিরে আসবে না।

সোমবার সন্ধ্যায় মর্মান্তিক এই ঘটনার সাক্ষী হয়ে রইলেন ভারতের গোঘাটের কামারপুকুর লাহাবাজার এলাকার মানুষজন। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সেদিন সন্ধায় মা-‌হনুমান তার বাচ্চাকে সঙ্গে নিয়ে ফিরছিল। পথে পাঁচটি কুকুর বাচ্চা হনুমানকে আক্রমণ করে। সন্তানকে বাঁচাতে রুখে দাঁড়ায় মা-‌হনুমান।

বেশ কিছুক্ষণ কুকুরদের সঙ্গে লড়াই চালিয়ে যায় মা। সেই সুযোগে বাচ্চা হনুমান গাছে উঠে পড়ে। কুকুরের দল তখন বাচ্চাকে ছেড়ে মাকেই আক্রমণ করে। একদল কুকুরের সঙ্গে অসম যুদ্ধে শেষ পর্যন্ত হার মানে মা-‌হনুমান। কুকুরেরা তার শরীরের বিভিন্ন অংশ কামড়ে ছিঁড়ে দেয়। কামড় বসিয়ে দেয় তার গলার গলাতেও। রক্তাক্ত শরীরে লুটিয়ে পড়ে মা-‌হনুমান।

ঘটনাটি দেখতে পান বাবলু কর্মকার নামে এক স্থানীয় বাসিন্দা। তিনি ছুটে গিয়ে কুকুরগুলিকে তাড়িয়ে বাচ্চা হনুমানটিকে রক্ষা করেন। এলাকার মানুষও এসে হাজির হন। তাঁরা বাচ্চা হনুমানটিকে সেবা-শুশ্রূষা করে সুস্থ করেন। বাবু সেখ নামে এক ব্যক্তি বাচ্চা হনুমানকে বাড়িতে নিয়ে গিয়ে গরম দুধ ও অন্যান্য খাবারের ব্যবস্থা করেন। কিন্তু মাকে কাছে না পেয়ে খেতেই চায়নি শিশু হনুমানটি। এই ঘটনায় এলাকার মানুষ মর্মাহত। সকলের মুখে মুখে ফিরছে সন্তানকে বাঁচানোর জন্য মায়ের এই অসম লড়াইয়ের কাহিনি।