নববধূর বেশে সংসদে শপথ নিলেন অভিনেত্রী নুসরাত

লোকসভায় শপথের দিন উপস্থিত থাকতে পারেননি ৷ সে সময় ডেস্টিনেশন ওয়েডিং সারতে তুরস্কের বোদরুমে উড়ে গিয়েছিলেন বসিরহাট কেন্দ্র থেকে জয়ী তৃণমূলের সাংসদ নুসরাত জাহান৷ রবিবার ভোর রাতে কলকাতায় পৌঁছনোর পর মঙ্গলবার সকালে লোকসভায় শপথ গ্রহণ করলেন নুসরাত ৷ বন্ধুর বিয়েতে উপস্থিত থাকতে গিয়ে শপথের দিন উপস্থিত থাকতে পারেননি যাদবপুর লোকসভা কেন্দ্র থেকে জয়ী তৃণমূলের সাংসদ মিমি চক্রবর্তীও ৷ এদিন দু’জনেই লোকসভায় বাংলায় শপথ গ্রহণ করেন ৷

সদ্যই বিয়ে হয়েছে ৷ তাই একেবারে নববধূর সাজে লোকসভায় পৌঁছন তারকা-সাংসদ নুসরাত ৷ বেগুনি পাড় সাদা লিনেন শাড়ির আঁচল ছিল গায়ে জড়ানো ৷ হাত ভর্তি মেহেদী, চুড়ি আর সিঁথিতে ছিল চওড়া সিঁদুর ৷ শপথ গ্রহণের অনুষ্ঠানে উপস্থিত না থেকে বিয়ে করতে যাওয়া নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপক ট্রোলড হতে হয় নুসরাতকে ৷ শুধু তাই নয়, যখন তাঁর কেন্দ্রের অন্তর্গত সন্দেশখালিতে অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতি হয়েছে তখনও সেখানে উপস্থিত থাকেননি নায়িকা ৷

বরং দূরে থেকে ট্যুইট করেছিলেন তিনি ৷ সন্দেশখালি নিয়ে সাংবাদিকদের উদ্দ্যেশে তিনি বলেছিলেন, ‘‘সবকিছু হ্যান্ডেল্ড রয়েছে৷’’ এরপরেই বিতর্কের আগুনে আরও হাওয়া লাগে ৷ তবে কোনও বিতর্কে কর্ণপাত না করেই সপরিবারে তুরষ্কে উড়ে গিয়েছিলেন নুসরাত ৷ ১৯ জুন হিন্দু মতে তাঁদের বিয়ে হয় ৷ পরেরদিন ছিল হোয়াইট ওয়েডিং ৷ শহরের কোলাহল নয় ৷ কলকাতা থেকে ৫ হাজার ৯৮৯ কিলোমিটার দূরে তুরস্কের বোদরুম শহরের ‘সিক্স সেন্সেস কাপালায়াঙ্কা’য় বন্ধু তথা ফ্যাশন ব্র্যান্ডের মালিক নিখিল জৈনের সঙ্গে চার হাত এক হয়েছে নুসরাতের ৷